বেটিং কি ইসলামে হারাম? Is batting haram in Islam? বাজি ধরা নিয়ে ইসলাম কি বলে?

আমরা অনলাইনে বেটিং এর ব্যাপারে অনেকেই শুনেছি। অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এ লাইভ খেলায় বেটিং করার মাধ্যমে টাকা আয় করার ব্যাপার বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়। 

বাংলাদেশের বিভিন্ন টেক ইউটিউব সহ বিভিন্ন প্রমোশনাল সাইটে এই ধরনের বেটিং কোম্পানির প্রচারণা আজকাল সহজেই দেখা মিলছে। প্রশ্ন হল বেটিং ইসলামের দৃষ্টিতে কি? বেটিং কি হালাল নাকি হারাম? 

আজকের ছোট আলোচনায় বেটিং বা জুয়া সম্পর্কে ইসলাম কি বলে সেটি আপনাদের সামনে তুলে ধরব। আশা করি সাথেই থাকবেন। 


ইসলামে জুয়া খেলা কি?

সহজ কথায় বলছি ইসলামে জুয়া খেলা পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এখন আপনি জুয়াকে যেই নামই দেন-না কেন স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে ইসলাম সম্পূর্ণ রূপে নিষিদ্ধ।

অনলাইনে বেটিংকে অনেকে জুয়া বলতে নারাজ। কেউ এটাকে বলছে গেমে প্রেডিকশন করে টাকা আয়, কেউ বলছে এটা জাস্ট ফান। কিন্তু বাস্তবতা হল এর ভয়াবহতা আপনার চিন্তার বাইরে। 

তাই আপনি যতই অনলাইন বেটিংকে বিভিন্ন রূপে গ্রহণ করতে চান না কেন? আল্লাহ পাক ইসলামে বেটিং বা জুয়াকে পুরোপুরি নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছেন। তাই আমাদের প্রত্যেকের উচিত এই ধরনের ফাহেশা বা খারাপ কাজ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা। 


কেন জুয়া আমাদের জন্য ক্ষতিকর?

জুয়া মানুষকে ধ্বংসের পথে নিয়ে যায়। সাময়িকভাবে আপনার মনে হতে পারে যে আপনি লাভবান হচ্ছেন কিন্তু প্রকৃত অর্থে আপনি যা দেখছেন তা শুধু মরীচিকা। আপনি আজকে যা লাভ করবেন কালকে বা পরশু এর দ্বিগুন আপনাকে হারাতে হবে। 

জুয়া মানুষের মনে লোভের সঞ্চার ঘটায়। মানুষকে লোভী ও ধৈর্যহারা বানিয়ে ফেলে। আর এই সব গুণাবলী ঈমানের পরিপন্থী। 

ইসলামের দৃষ্টিতে জুয়ার অনেকগুলো ক্ষতিকারক দিক রয়েছে। আমাদের জন্য জুয়া ক্ষতিকর তাই ইসলামে জুয়াকে হারাম হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। 

Next Post Previous Post